বুধবার, ১৭ এপ্রিল, ২০২৪, ৪ বৈশাখ, ১৪৩১
প্রচ্ছদ লাইফস্টাইল মানসিক চাপ ও দুশ্চিন্তা দূর করার কৌশল জেনে রাখুন

মানসিক চাপ ও দুশ্চিন্তা দূর করার কৌশল জেনে রাখুন

বর্তমান সময়ে অধিকাংশ মানুষই হতাশা ও উদ্বেগের শিকার হচ্ছেন। এর পেছনে কিছু কারণ আছে যেমন অফিসের কাজের চাপ, সাফল্য, পারিবারিক কলহ, প্রেম ইত্যাদি। এসব কারণে মানুষ প্রায়ই তাদের মানসিক স্বাস্থ্যের বিঘ্ন ঘটায়। কিছু মানুষের মধ্যে, উদ্বেগের সমস্যা এতটাই বেড়ে যায় যে তাদের থেরাপি নিতে হয়।

কেউ যদি দুশ্চিন্তার সমস্যায় ভোগেন, তাহলে কিছু উপায় বা অভ্যাস আছে যা রপ্ত করতে পারলেই স্ট্রেস বা দুশ্চিন্তা দূর হবে। জেনে নিন কী কী-

ব্যায়াম করুন

দুশ্চিন্তা এড়াতে ব্যায়াম শুরু করুন। ব্যায়াম করার জন্য জিমে যেতে হবে এমনটি নয়। আপনি হাঁটতে, সাঁতার কাটতে বা সন্ধ্যায় সাইকেল চালাতে পারেন। এ ধরনের বহিরঙ্গন কার্যকলাপ আপনার মানসিক স্বাস্থ্য নিরাময়ে সাহায্য করে।

কম কফি গ্রহণ করুন

আপনি যদি মানসিক চাপ ও বিষণ্নতা কমাতে চান, তাহলে কম কফি পান করুন। কফিতে প্রচুর পরিমাণে ক্যাফেইন থাকে যা আপনার মানসিক চাপকে আরও বাড়িয়ে দিতে পারে।

এক কাপ কফিতে প্রায় ৮০-১০০ মিলিগ্রাম ক্যাফেইন থাকে। যা মাথাব্যথা, মাইগ্রেন ও উচ্চ রক্তচাপের কারণ হতে পারে।

পর্যাপ্ত ঘুমান

আপনি যদি বিষণ্নতা থেকে নিজেকে রক্ষা করতে চান, তাহলে পর্যাপ্ত ঘুমান। ঘুমের অভাবেও মানুষ দুশ্চিন্তার শিকার হয়।

হাঁটতে বের হন

আপনি যখন বেশি অস্থির বোধ করতে শুরু করেন, তখন ঘরে বসে না থেকে একা একা হাঁটতে বের হন। এতে তাজা বাতাসে শ্বাসও নিতে পারবেন আবার স্বস্তিও অনুভব করবেন।

মেডিটেশন শুরু করুন

মেডিটেশন ডিপ্রেশনের সমস্যা কমায় ও শরীরকে সুস্থ রাখে। মেডিটেশন সুখী হরমোন নিঃসরণ করে যা আপনার মনকে শান্ত রাখে।

খাদ্যাভ্যাসের যত্ন নিন

দুশ্চিন্তাজনিত সমস্যায় ভুগছেন এমন ব্যক্তিদের খাদ্যাভ্যাসের বিশেষ যত্ন নেওয়া উচিত। জাংক ফুড খাওয়া বন্ধ করুন। এর পরিবর্তে স্বাস্থ্যকর জিনিস খান। আপনার খাদ্যতালিকায় ফল, শাকসবজি, বাদাম ও বীজ অন্তর্ভুক্ত করুন।

সোশ্যাল মিডিয়া থেকে দূরত্ব বজায় রাখুন

দুশ্চিন্তা এড়াতে সোশ্যাল মিডিয়ার ব্যবহার কমিয়ে দিন। অফিস থেকে বাসায় আসার পর, আপনার স্মার্টফোন, কম্পিউটার ও ট্যাবলেটে না জড়িয়ে, পরিবার ও প্রিয়জনের সঙ্গে সময় কাটান বা সৃষ্টিশীল কাজে নিজেকে ব্যস্ত রাখুন।

সূত্র: প্রেসওয়্যার ১৮

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

Join Manab Kallyan

সর্বোচ্চ পঠিত