শুক্রবার, ১৯ জুলাই, ২০২৪, ৪ শ্রাবণ, ১৪৩১

ন্যাটো সম্মেলনে ফিলিস্তিন ইস্যু

পশ্চিমাদের ‘ভণ্ডামি’ ছাড়তে বললেন স্পেনের প্রধানমন্ত্রী

এবারের ন্যাটো সম্মেলনে ইউক্রেন যুদ্ধের জন্য রাশিয়ার তীব্র সমালোচনা করে কিয়েভকে একঝাঁক সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছে পশ্চিমারা। কিন্তু ফিলিস্তিন ইস্যুতে বরাবরের মতোই চুপ তারা। ব্যতিক্রম কেবল স্পেন।

গত বুধবার (১০ জুলাই) ওয়াশিংটনে ৭৫তম ন্যাটো সম্মেলনে ঝাঁঝালো বক্তব্য রেখেছেন স্প্যানিশ প্রধানমন্ত্রী পেদ্রো সানচেজ। ইউক্রেন ইস্যুতে সোচ্চার, আর ফিলিস্তিন ইস্যুতে চুপ থাকায় ন্যাটো নেতাদের ‘ভণ্ড’ বলে কটাক্ষ করেছেন তিনি।

কিছুদিন আগেই ফিলিস্তিনকে স্বাধীন রাষ্ট্রের স্বীকৃতি দিয়েছে স্পেন। গাজায় নির্বিচার হত্যাযজ্ঞ চালানোয় ইসরায়েলি সরকারের কঠোর সমালোচনাও করেছে তারা।

ন্যাটো সম্মেলনে পশ্চিমা নেতাদের উদ্দেশ্যে স্প্যানিশ প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা যদি জনগণকে বলি, আন্তর্জাতিক আইন রক্ষার জন্য আমরা ইউক্রেনকে সমর্থন করছি, তাহলে গাজার প্রতিও আমাদের করণীয় একই।

তিনি বলেন, আমাদের একটি ‘সামঞ্জস্যপূর্ণ রাজনৈতিক অবস্থানে’ থাকা উচিত, যেখানে কোনো ‘দ্বিচারিতা’ থাকবে না।

সানচেজ বলেন, ফিলিস্তিনিদের ‘এই ভয়ানক মানবিক সংকট বন্ধ করতে’ বিশ্বকে চাপ দেওয়া দরকার। এসময় ফিলিস্তিনি রাষ্ট্রের জন্য একটি আন্তর্জাতিক শান্তি সম্মেলনের আহ্বান জানান স্প্যানিশ প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, আমাদের অবিলম্বে এবং জরুরিভিত্তিতে যুদ্ধবিরতির জন্য শর্ত তৈরি করতে হবে। লেবাননে সংঘাত বৃদ্ধির ‘সত্যিকারের ঝুঁকি’ রয়েছে।

স্প্যানিশ প্রধানমন্ত্রী জানান, তিনি ‘গণতন্ত্র, স্বাধীনতা এবং ইউক্রেনের মতো একটি দেশের অস্তিত্বের অধিকারকেও সমর্থন করেন’।

Join Manab Kallyan