সোমবার, ১৫ জুলাই, ২০২৪, ৩১ আষাঢ়, ১৪৩১

আল্লাহর অসীম ক্ষমতার নিদর্শন

সুরা নাজিআত কোরআনের ৭৯তম সুরা, এর আয়াত সংখ্যা ৪৬ এবং রুকু তথা অনুচ্ছেদ সংখ্যা ২। সুরা নাজিআত মক্কায় অবতীর্ণ হয়েছে। এ সুরায় আল্লাহ তাআলা সুনিশ্চিতভাবে মানুষকে অবহিত করেছেন কেয়ামত সংঘটিত হবেই। মৃত্যুর পর মানুষকে আবার জীবিত করে হবে এবং নিজেদের কাজের প্রতিফল মানুষকে ভোগ করতেই হবে। সুরাটির শুরুতে মানুষের প্রাণ হরণকারী, আল্লাহর বিধানসমূহ দ্রুত বাস্তবায়নকারী এবং আল্লাহর নির্দেশ অনুযায়ী সারা বিশ্ব জাহানের ব্যবস্থাপনা পরিচালনাকারী ফেরেশতাদের শপথ করা হয়েছে। এর মাধ্যমে আল্লাহ সুবাহানাহু ওয়াতাআলার অসীম ক্ষমতার কথা স্মরণ করিয়ে দেওয়া হয়েছে; যে সর্বশক্তিমান স্রষ্টা সুনিপুনভাবে গোটা বিশ্বজাহান পরিচালনা করছেন, তিনি অবশ্যই পৃথিবী ধ্বংস করে দিতে এবং মানুষকে ‍পুনরায় জীবিত করে হিসাব নিকাশের জন্য জমা করতে সক্ষম।

সুরা নাজিআতের ২৭-৩৩ আয়াতে আল্লাহ সুবাহানাহু ওয়াতাআলা বলেন,

(২৭)
أَأَنْتُمْ أَشَدُّ خَلْقاً أَمِ السَّمَاءُ بَنَاهَا

আআনতুম আশাদ্দুখালকান আমিস-সামাউ বানাহা।

তোমাদের সৃষ্টি করা কঠিনতর না আকাশ সৃষ্টি, যা তিনি নির্মাণ করেছেন?

(২৮)
رَفَعَ سَمْكَهَا فَسَوَّاهَا
রাফাআ সামকাহা ফাসাওয়াহা।

তিনি একে উচ্চ করেছেন ও সুবিন্যস্ত করেছেন।

(২৯)
وَأَغْطَشَ لَيْلَهَا وَأَخْرَجَ ضُحَاهَا
ওয়া আগতাশা লাইলাহা ওয়া আখরাজা দুহাহা।

তিনি তার রাতকে আঁধারে ঢেকে দিয়েছেন, আর তার দিবালোক প্রকাশ করেছেন।

(৩০)
وَالْأَرْضَ بَعْدَ ذَلِكَ دَحَاهَا
ওয়াল-আরদা বাদা যালিকা দাহাহা।

পৃথিবীকে এর পরে বিস্তৃত করেছেন।

(৩১)
أَخْرَجَ مِنْهَا مَاءَهَا وَمَرْعَاهَا
আখরাজা মিনহা মাআহা ওয়া মারআহা।

তিনি তার ভেতর থেকে বের করেছেন তার পানি ও তৃণভূমি।

(৩২)
وَالْجِبَالَ أَرْسَاهَا
ওয়াল-জিবালা আরসাহা।

পর্বতগুলোকে তিনি দৃঢ়ভাবে প্রতিষ্ঠিত করেছেন,

(৩৩)
مَتَاعاً لَكُمْ وَلِأَنْعَامِكُمْ

মাতাআল্লাকুম ওয়া লিআনআমিকুম।

তোমাদের ও তোমাদের চতুস্পদ জন্তুগুলোর জীবনোপকরণস্বরূপ।

শিক্ষা ও নির্দেশনা

১. পরকাল, হিসাব ও প্রতিদানে বিশ্বাস মুসলমানদের মৌলিক ও গুরুত্বপূর্ণ বিশ্বাস, পরকালে অবিশ্বাসী হয়ে কেউ মুমিন হতে পারে না। পরকালের বিশ্বাস দৃঢ়ভাবে অন্তরে ধারণ করা আমাদের কর্তব্য।

২. আল্লাহর অপরিসীম ক্ষমতার ক্ষমতার অসংখ্য নিদর্শন আমাদের ঘিরে আছে। আমাদের কর্তব্য এ নিদর্শনগুলো দেখে আল্লাহর ক্ষমতার বিশালতা অনুভব করা। তিনিই সুউচ্চ আকাশ সৃষ্টি করেছেন। পৃথিবীকে বসবাসের উপযোগী বানিয়েছেন। রাত ও দিন সৃষ্টি করেছেন। ফল-ফসল সৃষ্টি করেছেন। তাই মানুষকে মৃত্যুর পর আবার সৃষ্টি করা ও বিচারের জন্য একত্র করা তার সাধ্য ও ক্ষমতার বাইরের কিছু নয়। বরং তার সৃষ্টি ও কুদরতের যে বিশাল সব নিদর্শন আমাদের চারপাশে আছে, সেগুলোর তুলনায় এটা তুচ্ছ কাজ।

৩. দুনিয়াতে প্রতিনিয়ত আমরা আল্লাহর অনুগ্রহ ও নেয়ামত ভোগ করছি। বসবাসের উপযোগী দুনিয়া, রাতের ঘুম, দিনে কাজ করার শক্তি ও পরিবেশ, মাঠের ফসল ও গাছের ফল-ফলাদি সবই তার নেয়ামত। তাই আমরা যেন প্রতিনিয়ত আল্লাহর শুকরিয়া আদায় করি।

Join Manab Kallyan