রবিবার, ১৪ জুলাই, ২০২৪, ৩০ আষাঢ়, ১৪৩১

মা ও খালার সঙ্গে এসএসসি পাস করলো সোহান

নাটোর কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র থেকে এসএসসি (ভোকেশনাল) পরীক্ষায় অংশ নিয়ে জিপিএ-৩.৯৬ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছে সোহান। তবে তার অনুভূতিটা একটু ভিন্ন। কেননা তার সঙ্গে এসএসসি পাস করেছেন তার মা ও খালা। তারা হলেন ইউপি মেম্বার নাসিমা বেগম (মা) ও হালিমা বেগম (খালা)। রোববার (১২ মে) এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফলাফলে এতথ্য জানা যায়।

নাসিমা বেগম ওমরগাড়ি ফাজিল মাদরাসার ভোকেশনাল শাখার কারিগরি শিক্ষা বোর্ড থেকে জিপিএ- ৩.৬৪ এবং একই মাদরাসা থেকে হালিমা বেগম জিপিএ-৩.৮৯ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছেন।

নাসিমা বেগম নলডাঙ্গা উপজেলার বিপ্রবেলঘরিয়া ইউনিয়নের মির্জাপুর দিয়ারপাড়া গ্রামের বাসিন্দা। তিনি বিপ্রবেলঘরিয়া ইউনিয়নের ৪, ৫ ও ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সংরক্ষিত নারী মেম্বার।

হালিমা বেগম একই ইউনিয়নের কৃষ্ণপুর দিঘা গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের স্ত্রী। তিনি একই ইউনিয়নের ৭, ৮ ও ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সংরক্ষিত নারী মেম্বার।

এসএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়া সোহান তার অনুভূতি প্রকাশ করে বলে, ‘আমার মা ও খালার সঙ্গে এসএসসি পাস করে আমি অনেক আনন্দিত। আমার মাকে এখন কেউ অশিক্ষিত বলতে পারবে না। এতে আমি অনেক খুশি।’

মা নাসিমা বেগম বলেন, ‘অনেক আগে থেকে আমার খুব ইচ্ছা আমি এসএসসি পাস করবো। কিন্তু মা-বাবার সংসারে নানা ঝামেলায় তা পূরণ হয়নি। পরে আমি আমার ছেলের পরামর্শে দাখিলে (ভোকেশনাল) ভর্তি হই। চলতি বছর এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয়। সবার দোয়ায় আমি ও আমার ছেলে পাস করেছি। এতে আমার পরিবার অনেক আনন্দিত।’

খালা হালিমা বেগম বলেন, ‘স্বামীর পরামর্শে বোন নাসিমার সঙ্গে ওমরগাড়ি মাদরাসার ভোকেশনাল শাখায় ভর্তি হই। দুই বোন একসঙ্গে পরীক্ষা দিই। মহান আল্লাহ পাকের রহমতে পাস করেছি। আমার জন্য দোয়া করবেন।’

এ বিষয়ে বিপ্রবেলঘরিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শাহজাহান আলী বলেন, নাসিমা ও হালিমা আমার পরিষদের সদস্য। দুজনই সমাজসেবার পাশাপাশি লেখাপড়া চালিয়ে যাচ্ছেন। এবার এসএসসি পরীক্ষায় দুজনই পাস করেছেন। আমার ও পরিষদের পক্ষ থেকে তাদের অভিনন্দন জানাই।

Join Manab Kallyan